Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

প্রধান আসামির স্ত্রীকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

প্রকাশের সময় : ১০ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলার প্রধান আসামি নূর হোসেনের সম্পদ বিবরণী যাচাইয়ের অংশ হিসেবে স্ত্রী রুমা হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল বুধবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন সংস্থাটির উপপরিচালক জুলফিকার আলী।
এর আগে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি দুদকে হাজির থাকতে নোটিশ পাঠানো হলেও রুমা হোসেন হাজির হননি। তলবি নোটিশে তিনি সেদিন হাজির না হওয়ার বিষয়ে অনুসন্ধান টিমকে কোনো কিছু জানাননি বা এ বিষয়ে কোনো আবেদনও করেননি। এ কারণে অনুসন্ধান টিমের পক্ষ থেকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) মাধ্যমে ৯ মার্চ দুদকে হাজির হতে আবার নোটিশ পাঠানো হয়। এর আগে দুদকে জমা দেওয়া নূর হোসেনের সম্পদ বিবরণী যাচাইয়ে ১৫ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে সরেজমিনে পরিদর্শনে যায় অনুসন্ধান দল।
গত ১৩ ডিসেম্বর কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে দুদকের সচিব আবু মো. মোস্তফা কামালের কাছে সম্পদের হিসাব জমা দেন নূর হোসেন। দুদকের সূত্র বলেছে, ওই সম্পদ বিবরণীতে নূর হোসেন এক কোটি ৭৮ লাখ টাকার সম্পদ দেখিয়েছেন। ওই সম্পদ বিবরণী যাচাইয়ে উপপরিচালক জুলফিকার আলী ও সহকারী পরিচালক শফিউল্লাহকে অনুসন্ধান কর্মকর্তা নিয়োগ দেয় দুদক। দুদকের এই কর্মকর্তারা নূর হোসেনের জমা দেওয়া হিসাব যাচাই করে দেখবেন। সম্পদের কোনো তথ্য গোপন করলে বা বিবরণীতে দেওয়া তথ্যের বাইরে কোনো সম্পদ পেলে দুদক আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।
সূত্র জানায়, অনুসন্ধানে নূর হোসেনের মোট আট কোটি টাকার সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুদক। এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জে পাঁচতলা একটি বাড়ি এবং নূর হোসেন ও তার সন্তানদের নামে নারায়ণগঞ্জ-চিটাগাং সড়কপথে চলাচলকারী এবিএস পরিবহনের ৩০টি বাস পাওয়া গেছে। দুদকের অনুসন্ধানে ওই সব সম্পদের বৈধ কোনো উৎস পাওয়া যায়নি।
২০১৪ সালের এপ্রিলে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলামসহ সাতজন খুনের ঘটনার পর নূর হোসেন ভারতে পালিয়ে যান। দুদক ২৯ মে তার সম্পদের অনুসন্ধানে নামলেও পরে এই কার্যক্রম অনেকটা স্থবির হয়ে পড়ে। গত বছরের ১২ নভেম্বর ভারত থেকে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার পর দুদকের অনুসন্ধানেও গতি আসে। ১৭ নভেম্বর গাজীপুরের কাশিমপুরে কারাগার-২-এর কারা তত্ত্বাবধায়কের মাধ্যমে নূর হোসেনকে সম্পদ বিবরণীর নোটিশ জারি করে দুদক।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রধান আসামির স্ত্রীকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ