Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯, ০৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

বিজেপি সরকারের জন্য প্রতিবেশীদের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয়েছে

| প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০১৭, ১২:০০ এএম


কোলকাতায় সংবাদ সম্মেলনে মমতা
ইনকিলাব ডেস্ক : ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকাল কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকারের তীব্র সমালোচনা করে বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকারের ভুলের জন্য প্রতিবেশী চীন, নেপাল, ভুটান ও বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয়েছে। গতকাল (সোমবার) কোলকাতা বিধানসভা চত্বরে এক সংবাদ সম্মেলনে মমতা ওই মন্তব্য করেন।
মমতা বলেন, ‘নেপাল-ভুটান-বাংলাদেশের প্রবেশদ্বার হল পশ্চিমবঙ্গ। সিকিম আজ চীনের কাছে চলে গেলে দার্জিলিং ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সবচেয়ে বেশি ভুগতে হচ্ছে (পশ্চিমবঙ্গ) বাংলাকে’।
দার্জিলিংয়ে গোর্খাল্যান্ড নিয়ে সহিংসতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এক মাস ধরে কেন্দ্রীয় বাহিনী চাওয়া হলেও তা পাঠানো হচ্ছে না। ইচ্ছাকৃতভাবে পাহাড় দুর্বল করে দিয়ে ‘বাইরের শক্তি’কে উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে’।
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, মিরিক লাগোয়া নেপালের পশুপতি গেট এলাকায় ৪০০ স্কুল তৈরি হয়েছে- যেখানে ‘চীনা ভাষা’ শেখানো হয়। সীমান্তবর্তী ওই এলাকায় কীভাবে এমন কার্যকলাপ চলছে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে গোয়েন্দা ব্যর্থতার ইঙ্গিত দিয়ে মমতা এদিন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন।
মমতা বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক চাই। কিন্তু গত ১ জুলাই বিশ্ব হিন্দু পরিষদ শেখ হাসিনার কুশপুত্তলিকা পুড়িয়েছে, তাদের এই সাহস কেন হবে? কেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নামে ‘দুর্গা বাহিনী’ গঠন করে ‘বন্দুকের প্রশিক্ষণ’ দেয়া হবে?’
মমতা বলেন, ‘কখনো গো-রক্ষকের নামে, কখনো বাহিনীর নামে সমান্তরাল সরকার চালানো হচ্ছে। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা ও নিরাপত্তা এজেন্সির কথা তুলে ধরে মমতা বলেন, ‘র’, আইবি, এনএসএ, এনআইএ কোথায়? কেন বর্ডার খুলে দেওয়া হয়?’
মমতার অভিযোগ, সাতক্ষীরা থেকে লোক এনে দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা করা হলে আমরা তা করতে দিইনি, রুখে দিয়েছি।’ তার প্রশ্ন- ‘কারা বর্ডার খুলে দিয়েছিল? কেন দিয়েছিল?’
কেন্দ্রীয় সরকারকে কার্যত চ্যালেঞ্জ জানিয়ে মমতা গতকাল বলেন, ‘আমরা বাঘের বাচ্চার মত লড়াই করে বেঁচে থাকব। প্রতিহিংসামূলক আচরণ করে কেউ যদি ভাবে আমাদের কারাগারে পাঠাবে, আমরা কারাগারে যেতে প্রস্তুত। কিন্তু কখনোই আমরা আমাদের মাথা নত করব না।’ পণ্য ও পরিষেবা কর জিএসটি ও নোট বাতিলের ফলে দেশ অনেক পিছিয়ে গেছে বলেও এদিন মন্তব্য করেন মমতা। সূত্র : পার্স টুডে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়


আরও
আরও পড়ুন