Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

পূর্ব জেরুজালেমে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘর্ষ, নিহত ৩ আহত শতাধিক

প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০১৭, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১১:৫৫ পিএম, ২১ জুলাই, ২০১৭

ইনকিলাব ডেস্ক : জেরুজালেমের পবিত্র আল-আকসা মসজিদে ইসরায়েলি হস্তক্ষেপের প্রতিবাদে রাস্তায় নেমে আসা ফিলিস্তিনিদের ওপর গুলিবর্ষণ করেছে ইহুদিবাদী সেনারা। গতকাল ২১ জুলাই শুক্রবার ইসরায়েলি সেনাদের বাধায় যারা মসজিদে প্রবেশ করতে পারেননি তারা রাজপথেই নামাজ আদায় করেছেন। পথগুলো যেন রূপান্তরিত হয়েছে প্রতিরোধের জায়নামাজে। এক পর্যায়ে মসজিদে প্রবেশ করতে না পারা বিক্ষুব্ধ মুসল্লিদের ওপর গুলি ছোঁড়ে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী। এতে অন্তত ৩ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রতিরোধের জমায়েতে অংশ নেওয়া শতাধিক মুসল্লি। পুরো জেরুজালেম শহরজুড়ে তাÐব চালাচ্ছে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য। তাদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ফিলিস্তিনি ভূখÐে অবৈধ বসতি স্থাপনকারী শতাধিক ইহুদি। ইসরায়েলি পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, পুরো এলাকায় অন্তত তিন হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। ফিলিস্তিনি রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেম ও পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনীর তাÐবে অন্তত ১৪০ জন আহত হয়েছেন।
শুক্রবারের বিক্ষোভে অংশ নেওয়া ফিলিস্তিনিরা আল আকসা মসজিদ থেকে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর সব বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার জোর দাবি জানান। এ সময় বিক্ষোভকারীদের ওপর ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর টিয়ার গ্যাস, রাবার বুলেট ও গুলিবর্ষণ শুরু হলে হতাহতের ঘটনা ঘটে।
এক ভিডিওতে দেখা গেছে, নামাজরত এক মুসল্লিকে লাথি মারছে ইসরায়েলি পুলিশ।
পূর্ব জেরুজালেম থেকে আল জাজিরা’র সাংবাদিক ইমরান খান বলেন, এটা পরিষ্কার যে, ইসরায়েলি বাহিনী জেরুজালেম শহরের প্রবেশমুখে ফিলিস্তিনিদের দেখতে চায় না। তাদের এমন আচরণে ক্ষুব্ধ মুসল্লিরা।
আল আকসা মসজিদ ঘিরে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যাপক অভিযানের মুখে সেনা সদস্যদের ছুটি বাতিল করেছে তেল আবিব। সেনাবাহিনীর প্রতিটি ইউনিটকে যে কোনও ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।
৪০ বছর বয়সী ফিলিস্তিনি মুতাহির আবু ইব্রাহিম। তিনি টেলিগ্রাফকে বলেন, মুসলিমদের জন্য এটা খুবই অপমানজনক। এটা মুসলিমদের পবিত্র স্থান। এটি দখলে ইসরায়েলের কোনও অধিকার নেই।’ তখনই তার চারপাশের মুসলিমরা আওয়াজ তুলতে থাকেন। সবাই বলেন, ‘আমরা আমাদের রক্ত দিয়ে হলেও আল-আকসাকে রক্ষা করবো। জেরুজালেমে গিয়ে আমরা শহীদ হবো।’
পরিস্থিতি সামাল দিতে বৃহস্পতিবার তার মন্ত্রিসভার সঙ্গে এক বৈঠক করেছে। সরকার পুলিশকেই তাদের ক্ষমতা ব্যবহারের নির্দেশ দিয়েছে। পুলিশের মুখপাত্র সুপারিটেন্ডেন্ট মিকি রোজেনফিল্ড বলেন, ‘পুলিশ ও সীমান্ত পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। যেকোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঠেকাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রস্তুত তারা। আল আকসা মসজিদ ৫০ বছরের উর্ধ্বে সবার জন্যেই খোলা।’
১৯৬৭ সালে যখন ইসরায়েল এই এলাকায় প্রবেশাধিকার পায় তখন শুধু মুসলিমরাই আল-আকসায় নামাজ পড়তে পারতো। দিনের একটি নির্দিষ্ট সময় প্রার্থনার সুযোগ পেত ইহুদিরা। মেনে চলতে হতো অনেক নিয়ম। বিগত ৫০ বছরে এই চিত্র অনেকটাই পাল্টে গেছে। আর ইসরায়েল এখন আল-আকসার দখল নিতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
২০ জুলাই ২০১৭ বৃহস্পতিবার আল আকসা মসজিদে প্রবেশে ইসরায়েলি বিধিনিষেধ নিয়ে কথা বলেন ইসরায়েলের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গিলাদ এরদান। ইসরায়েলি আর্মি রেডিও’কে তিনি বলেন, আল আকসায় প্রবেশে যে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে; গত এক সপ্তাহে এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে কোনও প্রতিবাদ এমনকি কোনও নিন্দাও আসেনি। সূত্র: আল জাজিরা, মিডল ইস্ট মনিটর, বিটি।

পুরানা নগরীতে অনূর্ধ্ব ৫০ বছর বয়সীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

জেরুজালেমের পুরানা নগরীতে গতকাল শুক্রবার জুমা নামাজের জন্য অনূর্ধ্ব ৫০ বছর বয়সী কাউকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না জানিয়েছে ইসরাইলি পুলিশ। জেরুজালেম অতি-স্পর্শকাতর পুরানা নগরীতে উত্তেজনা বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে নতুন নিরাপত্তামূলক পদক্ষেপ হিসেবে এ সিদ্বান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানায় ইসরাইলি পুলিশ। এএফপি
ইসরাইলি পুলিশের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা বলেছে, পুরানা নগরীতে শুধু ৫০ বছর ও তার বেশি বয়সীদের প্রবেশ করতে দেয়া হবে। তবে যে কোন বয়সী নারীর প্রবেশাধিকারে কোন বাধা নেই। জেরুজালেমে অবস্থিত পবিত্র হারাম আল-শরিফ মসজিদের প্রবেশদ্বারে তল্লাশির জন্য ইসরাইলি পুলিশ মেটাল ডিক্টেটর স্থাপন করার পর উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। ইসরাইলি পুলিশ বলেছে, ইতোপূর্বে হারাম আল-শরিফের কাছে এক আক্রমণে দুই ইসরাইলি পুলিশ নিহত হয়। এ কারণে নতুন নিরাপত্তা গ্রহণ করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ