Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

প্রতিটি বাসার সামনে স্প্রেম্যান না গেলে আমাকে জানাবেন -সাঈদ খোকন

মশক নিধন অভিযান

প্রকাশের সময় : ১১ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণ সিটি কপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, মশাবাহিত রোগগুলো কিডনি রোগের জন্যেও দায়ী। এই শহর থেকে মশা একেবারে নির্মূল করা সম্ভব নয়। আশপাশের এলাকা থেকে প্রবেশ করবেই। তবে নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব। সাঈদ খোকন বলেন, স্প্রেম্যানরা ওষুধ ছিটানোর পরে মশারা পড়ে যাচ্ছে। কিছুক্ষণ পরেই আবার উড়ে যাচ্ছে। বুঝতে পারি না। আমি বলেছি, ওষুধ বাড়িয়ে দিতে। কিন্তু বেশি ওষুধ দিলেও আবার জনস্বাস্থ্যের জন্যে ঝুঁকি হয়ে যায়। মেয়র বলেন, প্রতিটি বাসার সামনে মশার স্প্রেম্যান যাবেন। না গেলে আমাকে সরাসরি জানাবেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে বিশ্ব কিডনি দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। মেয়র বলেন, এই শহরে সবাইকেই মেয়র হতে হবে। আমরা যেন কলা খেয়ে খোসাটা রাস্তায় না ফেলি। চিপসের প্যাকেট ছুড়ে না ফেলি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় মার্চ ও এপ্রিল মাসেই ময়লা ফেলার জন্যে ৫ থেকে ৭ হাজার ডাস্টবিন দেওয়া হবে বলেও জানান মেয়র।
তিনি বলেন, কিডনি রোগের জন্য ভেজাল খাদ্য দায়ী। গত মঙ্গলবার আমার সিটি কর্পোরেশনে প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা হিসেবে একজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নিয়োগ পেয়েছেন। আমি তাকে বলেছি, ভেজাল খাদ্য প্রস্তুতকারক তিনজন শীর্ষ ব্যক্তিকে জেলে দেখতে চাই, তারা যত বড় ক্ষমতাধর ব্যক্তিই হোন না কেন।
মেয়র বলেন, শহরের মাঠগুলোর ৪০ থেকে ৪৫ শতাংশই অবৈধ দখলে রয়েছে। এগুলোকে দখলমুক্ত করার চেষ্টা চলছে। এরই মধ্যে ২২টি খেলার মাঠের প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
তিনি বলেন, এর মধ্যে ওসমানী উদ্যান ও পান্থকুঞ্জ সরাসরি ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের অধীনে। বিশ্বখ্যাত স্থপতি রফিক আজাদ ওসমানী উদ্যানের নতুন নকশা করেছেন। নতুন ভাবে ওসমানী উদ্যানকে সাজানো হবে নগরবাসীর জন্যে। এখানে বিশ্রাম নিতে পারবেন, সুর থাকবে, পানি থাকবে, রিফ্রেশমেন্টের ব্যবস্থা থাকবে। আলোচনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিশু স্বাস্থ্য ফাউন্ডেশনের সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক ডা. এম আর খান বলেন, পানিশূন্যতার কারণে ডায়রিয়া যেমন হয়, শিশুদের কিডনি রোগের ঝুঁকিও বাড়ে। তবে প্রথম অবস্থাতেই চিহ্নিত করা গেলে সহজেই প্রতিরোধ করা যায়। তিনি শহরে শিশুদের খেলার মাঠ, হাঁটার জায়গা তৈরির ওপর গুরুত্ব দেন।
বাংলাদেশ রেনাল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনায় আরো অংশ নেন বাংলাদেশ কিডনি ফাউন্ডেশনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন-উর-রশীদ, পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজি সোসাইটি অব বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেন, মহাসচিব অধ্যাপক মোহাম্মদ হানিফ, বাংলাদেশ রেনাল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব অধ্যাপক ম. মহিবুর রহমান, ক্যাম্পসের সভাপতি অধ্যাপক এম এ সামাদ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ