Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ মুহাররম ১৪৪৪

পালিয়ে যাবার ইতিহাস আ’লীগের বিএনপির নেই ডা: জাহিদ

| প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ময়মনসিংহ ব্যুরো : বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ডা: এজেএড এম জাহিদ হোসেন বলেছেন, পালিয়ে যাবার ইতিহাস আওয়ামীলীগের, বিএনপি নেই। বিএনপির ইতিহাস জনগনের পাশে থাকার ইতিহাস। স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় আওয়ামীলীগ পালিয়ে গিয়ে আত্মসমর্পন করেছিল। আর শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান রনাঙ্গণে থেকে যুদ্ধ করেছেন। তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দেশে ফিরে জনগনের ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার আন্দোলনের নেতৃত্ব দেবেন। এবং তিনি সহায়ক সরকারের যে রূপরেখা দিবেন তা বেগবান করার জন্য সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমকে আরো জোরদার করার জন্য সবাইকে ব্যাপক ভাবে অংশ গ্রহন করতে হবে। এবং আগামী দিনে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে গণতন্ত্র উদ্ধার করতে হবে। এ জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। এ সময় ডা: জাহিদ আরো বলেন, আগামী দিনে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে জনগণকে সাথে নিয়ে অবৈধ সরকারকে বিতাড়িত করে জনগনের ভোটের অধিকার ফিরে আনা হবে। শুক্রবার দুপুরে ময়মনসিংহ নগরীর নতুন বাজারস্থ জেলা বিএনপির কার্যালয়ে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
এ সময় জেলা বিএনপির সভাপতি একেএম মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে সাধারন সম্পাদক আবু ওয়াহাব আকন্দের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়ারেস আলী মামুন, ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর মাহমুদ আলম, শহর বিএনপির সভাপতি অধ্যাপক শফিকুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক শেখ আমজাদ আলী, কোতয়ালী বিএনপির সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম মো: ওয়ালিদ, ভালুকা বিএনপির সভাপতি ফখরুদ্দিন আহম্মেদ বাচ্চু, গফরগাঁও বিএনপির সভাপতি এবি সিদ্দিকুর রহমান, মুক্তাগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান জাকারিয়া হারুন, ত্রিশালের উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, নেত্রকোনা জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক আবু তাহের তালুকদার, ময়মনসিংহ জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক কাজী রানা, শাহ শিব্বির আহম্মেদ বুলু, কোতয়ালী বিএনপির সাধারন সম্পাদক হেলাল আহম্মেদ, জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুল আলম মাহাবুব, লিটন আকন্দ, জেলা আইনজীবী ফোরামের সাধারন সম্পাদক অ্যাড. নূরুল হক, আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাড. ড. মীর মিজানুর রহমান, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম ভূইয়া, বিএনপি নেতা অ্যাড. আনোয়ারুল আজিজ টুটুল, শমসের, ফজলু, ভাইস চেয়ারম্যান খালেদা আতিক, জেলা যুবদল সভাপতি শামীম আজাদ, সাধারন সম্পাদক খন্দকার মাসুদ, শ্রমিক দল সভাপতি আবু সাঈদ, জাসাস সভাপতি শরীফ মাহমুদুল হক সঞ্চয়, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি তানভীরুল ইসলাম টুটুল, সাধারন সম্পাদক সুজাউদ্দৌল্লাহ সুজা, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শহীদুল আমীন খসরু, সাধারন সম্পাদক রফিকুল আলম শামীম, যুবদল নেতা জগলুল হায়দার, বাকৃবির ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক জসীম উদ্দিন জনি প্রমূখ।



 

Show all comments
  • কাওসার ২৯ জুলাই, ২০১৭, ১১:৩৯ এএম says : 0
    একদম ঠিক কথা বলেছেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএনপি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ