Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট ২০১৭, ৬ ভাদ্র, ১৪২৪, ২৭ যিলকদ ১৪৩৮ হিজরী

মসজিদগুলোকে জীবনের অংশে পরিণত করতে চাই : এরদোগান

| প্রকাশের সময় : ৭ আগস্ট, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : তুরস্কে নির্মিত মসজিদগুলোকে সমাজের জন্য জীবনের একটি অংশে পরিণত করার অঙ্গীকার করেছেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। গত শনিবার দেশটির ধর্ম বিষয়ক অধিদপ্তর আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ অঙ্গীকার করেন। এরদোগান বলেন, জাতীয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের লক্ষ্য হল শিশুদেরকে সর্বোত্তম, সঠিক, উন্নত ও ইতিবাচক শিক্ষা প্রদান করা। অন্যদিকে, ধর্মীয় বিষয়ে প্রেসিডেন্সির মিশন হল জনগণ এবং শিশুদেরকে সবচেয়ে সঠিক ও উন্নত পদ্ধতিতে ইসলামের শিক্ষা প্রদান করা। তিনি বলেন, আমরা আমাদের মসজিদগুলোকে কেবল চারটি দেয়াল, একটি মিহরাব এবং একজন ইমামের স্থান হিসাবে রেখে যাচ্ছি না। আমাদের স্কুল এবং মসজিদগুলোকে সমাজের জন্য জীবনের একটি অংশে পরিণত করতে চাই। তা না করা পর্যন্ত আমরা আমাদের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারছি না। এরদোগান বলেন, সন্ত্রাসী গ্রæপ পিকেকে নিজেকে কুর্দিদের প্রতিনিধিত্ব করার দাবি করে থাকে। কিন্তু এরাই কুর্দি জনগণকে হত্যা করছে। তিনি বলেন, তারা বলে, আমরা কুর্দি জনগণের প্রতিনিধি। তারা মিথ্যাবাদী। তারা ২০১৫ সালের ৭ জুনের নির্বাচনে সামান্য সফলতা পাওয়ায় তারা মানুষকে রাস্তায় নেমে আসার আহŸান জানিয়েছিল এবং এতে ৫৩ জন মানুষ নিহত হয় এবং এর জন্য তারাই দায়ী। তিনি আরো বলেন, যারা মারা গিয়েছিল তারা কারা ছিল? তাদের সবাই ছিল আমার কুর্দি নাগরিক। হত্যাকারী ছিল কারা? তারাও কুর্দি ছিল। তোমরা কি আসলেই কুর্দি জনগণের প্রতিনিধি? তিনি বলেন, বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আমাদের স্বপ্নগুলোকে চুরি করার মাধ্যমে অধিক সংখ্যক শিশুদের ক্ষতি করেছে। পিকেকে মূলত স্কুল, ডরমেটরিটিজ এবং শিক্ষকদের লক্ষ্য করে আক্রমণ চালাচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। এরদোগান বলেন, এটা সুস্পষ্ট যে সংগঠনটির উদ্দেশ্য হচ্ছে দেশের দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলে আমাদের সন্তানদেরকে স্কুল ও মসজিদ উভয়ের সঙ্গে তাদের বন্ধন ছিন্ন করা এবং তাদের নিজস্ব খারেজি মতাদর্শ অনুযায়ী তারা এসব শিশুকে ক্রীতদাস, চাকর এবং রোবটে পরিণত করতে চায়। কারণ তারা জানে যে সন্ত্রাসবাদ বা সন্ত্রাসীরা মসজিদে আশ্রয় নিতে পারে না। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইইউ কর্তৃক পিকেকে’কে একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। ২০১৫ সালের জুলাই মাসে সংগঠনটি তুরস্কের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অভিযান শুরু করে। তারপর থেকে দেশটিতে নারী ও শিশুসহ ১,২০০ তুর্কি নিরাপত্তা কর্মী ও বেসামরিক মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী। আনাদুলো।

 


Show all comments
  • Shahin Ahamed ৭ আগস্ট, ২০১৭, ১১:১৩ এএম says : 0
    Your excellency,you have taken a great preparation and purpose.Live long and succeed.Allah is with you.
    Total Reply(0) Reply
  • Md Shohel Rana ৭ আগস্ট, ২০১৭, ১১:১৫ এএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ
    Total Reply(0) Reply
  • Sharif Miazi ৭ আগস্ট, ২০১৭, ১১:১৬ এএম says : 0
    yes
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ আব্দুল গাফফার ৭ আগস্ট, ২০১৭, ১১:২০ এএম says : 0
    ধন্যবাদ এরদোগান, ধন্যবাদ! মসজিদ গুলোকে মানব জীবনের অংশ বানানোর জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। সেই সাথে পৃথিবীর সকল মসজিদ ওয়ালা দেশগুলোও যাতে মসজিদগুলোকে মানব জীবনের উন্নয়নের কেন্দ্র স্থল বানাতে পারে
    Total Reply(0) Reply
  • MD. Mazharul Eqbal ৭ আগস্ট, ২০১৭, ১২:৩৯ পিএম says : 0
    You are all right.
    Total Reply(0) Reply
  • Mollah Zahir ৭ আগস্ট, ২০১৭, ৪:২০ পিএম says : 0
    Thank You Mr. Erdogan, President of Turkey, Allah bless you.
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ আকবার আলী ১২ আগস্ট, ২০১৭, ১১:৪০ এএম says : 0
    ইয়া মাবুদ তুমি এরদোগানকে হায়াত দান করুন। এবং তাকে ঈমানের প্রতি অটল থাকার তাওপিক দান করুন। আমিন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ