Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় মাছ শিকার অব্যাহত

প্রকাশের সময় : ১২ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

এসএম বাবুল (বাবর) ল²ীপুর থেকে : ল²ীপুর জেলার চরআলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুর জেলার মতলবের ষাটনল এলাকায় ১ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দুইমাস যে কোনো ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা হলেও ল²ীপুরের রামগতির মেঘনা নদী এলাকায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার অব্যাহত রেখেছে মাহাজন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও তাদের আত্মীয়-স্বজন। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ স্বীকারের দায়ে গত দশ দিনে ২৩ জেলেক আটক করা হয়। এ সময় কারেন্ট জাল, বেহেন্দি জাল ও বিভিন্ন প্রজাতির বিপুল পরিমাণ মাছের পোনা জব্দ করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আটককৃত জেলেদের জরিমানা করলেও জেলেদের পরিচালনাকারী মাহাজন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও তাদের আত্মীয়-স্বজনরা রয়ে যায় ধরা-ছোঁয়ার বাইরে। ১১ মার্চ সকালে মজুচৌধুরী হাট এলাকার কাছিয়ার খালে স্থানীয় দুই ইউপি সদস্য কারেন্ট জালের সাহায্যে জেলেদের দিয়ে নদীতে মাছ ধরার সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান চালানো হলে দুই ইউপি সদস্য মোটরসাইকেল রেখে পালিয়ে যায়।
সোমবার কমলনগরের মেঘনা নদীর ফলকন, কালকিনি ও সাহেবেরহাটসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে জসিম উদ্দিন ও মান্নান, জেলে নবির হোসেন, খোকন, আব্বাস, আবদুল মালেক, জহির, বাহার, মমিন, মিরাজ, মফিজ, শামিম ও আহাম্মদ উল্যাহসহ ১৫ জেলেকে আটক ও তাদের ব্যবহৃত প্রায় ১ লাখ বর্গমিটার কারেন্টজাল জব্দ করেন। বিকেলে কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম মজুমদার ভ্রাম্যমাণ আদালতে দুই জেলে নৌকার মালিককে ১৫ হাজার টাকা করে ও ১৩ জেলের প্রত্যেকের ৬ হাজার টাকা করে জরিমানা করে।
মঙ্গলবার রামগতির মেঘনা নদীতে থেকে ললিত মোহন জলদাস, অনন্ত জলদাস, ক্ষীরমন জলদাস, শিপন জলদাস, রাধা কমল জলদাস, বিপ্লব জলদাস, সারধা জলদাসসহ ৮ জেলেকে ৭০০ মিটার কারেন্টজাল, ২টি বেহেন্দি জাল ও ১০০ কেজি পোয়া মাছের পোনাসহ আটক করা হয়। পরে আটককৃতদের ৪ হাজার টাকা করে মোট ৩২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জব্দকৃত জালে অগ্নিসংযোগ করে ধ্বংস করা হয় ও পোয়া মাছের পোনাগুলো অসহায়দের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।
জেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, ইলিশ সংরক্ষণে ‘অভয়াশ্রম কর্মসূচি’র অংশ হিসেবে ১ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত যে কোনো ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে কর্তৃপক্ষ। এ কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ল²ীপুরের নদীতীরবর্তী এলাকায় মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে অবহিতকরণ সভা করা হয়। নিষিদ্ধের সময়ে ল²ীপুরে ৬২ জন তালিকাভুক্ত জেলেদের ৪০ কেজি করে চাল দেয়া হয়। জনসাধারণকে অধিক সচেতন করার লক্ষে ‘জাটকা মাছ বাড়তে দিন, ফিরবে মোদের সোনালি দিন’- এ প্রতিপাদ্য বিষয়কে ধারণ করে বৃৃহস্পতিবার (৩ মার্চ ) দুপুরে রামগতি উপজেলা পরিষদ চত্বরে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ উদ্বোধনী করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ল²ীপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ আবদুল্লাহ আল মামুন, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সৈয়দ আরিফ আজাদ, নৌ-পুলিশের ডিআইজি মনিরুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, রামগতি পৌরসভার মেয়র মেজবাহ উদ্দিন মেজু প্রমুখ। পরে রামগতির আলেকজান্ডার আদালত ঘাট থেকে একটি বর্ণাঢ্য নৌ-র‌্যালি শুরু হয়ে মেঘনা নদীর ৭ কিলোমিটার ঘুরে স্থানীয় গাবতলী ঘাটে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড ও নৌপুলিশের দুটি জাহাজসহ শতাধিক নৌকা ও স্প্রিডবোর্ডে করে জেলে ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ সহস্রাধিক লোক অংশ নেয়।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় মাছ শিকার অব্যাহত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ