Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

চাপের কাছে মাথা নত নয় -দুদক চেয়ারম্যান

| প্রকাশের সময় : ১৬ আগস্ট, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, কোনো দুর্নীতিবাজ কিংবা তদবীরবাজের চাপের কাছে মাথা নত করবো না। আমরা কোনো অবস্থাতেই কোনো দুর্নীতিবাজকে ছাড়বো না। আমরা যে-যে দায়িত্বে আছি তা আইন অনুযায়ী সততা, নিষ্ঠা ও নির্ভীকচিত্তে পালন করবো। তাহলেই হাজার বছরে শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি প্রকৃত শ্রদ্ধা প্রদর্শন হবে বলে আমি মনে করি। গতকাল মঙ্গলবার দুদকের প্রধান কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
দুদক চেয়ারম্যান বলেন, সরকারি কর্মকর্তার যদি সৎ হন বিশেষ করে মন্ত্রণালয়ের সচিব যদি দুর্নীতি না করেন বা দুর্নীতিকে প্রশয় না দেন , তা হলে ঐ মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতি হতে পারে না। তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশন রাষ্ট্রীয় একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা তখনই সমুন্নত থাকবে, যদি কমিশনের কর্মকর্তাগণ দুর্নীতিমুক্ত থাকেন। তবেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুরণন ঘটবে এই প্রতিষ্ঠানে।
ইকবাল মাহমুদ বলেনরাষ্ট্রীয় এই প্রতিষ্ঠানে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয় না, যা আমাকে বিস্মিত করেছে। আমরা গত বছর থেকেই শোক দিবস পালন করছি এ বছরও পালন করছি। তিনি বলেন, আলোচনা সভায় অনেকেই বঙ্গবন্ধুর কীর্তি এবং তার আদর্শের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের কথা বলেছেন। এই ষড়যন্ত্রের নাগপাশ থেকে জাতিকে রক্ষার ক্ষেত্রে দুদকেরও দায়িত্ব রয়েছে। তিনি আরো বলেন, সাধারণত যেকোনো ষড়যন্ত্রই করা হয় অনুপার্জিত অর্থ দিয়ে। অনুপার্জিত অর্থ তথা অবৈধ সম্পদ ধরার আইনি দায়িত্ব দুর্নীতি দমন কমিশনের। কোনা কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং কোনো কোনো দাতব্য সংস্থাই ষড়যন্ত্রের অর্থের যোগানদাতা। আর তাদেরেকে ক্ষেত্রে আইনের আওতায় আনার দায়িত্ব যেহেতু দুদকের, তাই এই প্রতিষ্ঠানের কর্মকতাদের শোককে শক্তিতে পরিণত করে এই সকল দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
কমিশনার ড. নাসিরউদ্দীন আহমেদ বলেন, আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আমাদের সম্মিলিতভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে। কমিশনার এএফএম আমিনুল ইসলাম বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে বাদ দিয়ে স্বাধীনতা কল্পনা করা যায় না। তার ডাকেই দেশের আপামর মানুষ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিল।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তবব্য রাখেন কমিশনের মহাপরিচালক ড. মোঃ শামসুল আরেফিন, মোঃ আসাদুজ্জামান, পরিচালক মোঃ মঞ্জুর আহমেদ, মোঃ জায়েদ হোসেন খান, উপপরিচালক মোঃ আবুল কাসেম, শেখ মোঃ ফানাফিল্যা, সেলিন আক্তার প্রমুখ। আলোচনা শেষে ১৫ আগস্ট শাহাদতবরণকারী সকলের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন দুদকের উপপরিচালক মোঃ রফিকুল ইসলাম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুদক চেয়ারম্যান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ