Inqilab Logo

শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

দুই দশকে আফ্রিকার প্রলয়ঙ্করী বন্যাগুলো

| প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিয়েরা লিয়নের রাজধানী ফ্রিটাউনে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যায় শত শত মানুষ নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে, যা গত দুই দশকের মধ্যে আফ্রিকা মহাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি। পূর্ব আফ্রিকায় এল নিনো : মূলত উষ্ণ ও শীতল তাপমাত্রার চক্রাবস্থাকে এল নিনো বলা হয়। ১৯৯৭ সালের অক্টোবর থেকে পরের বছর জানুয়ারি পর্যন্ত এল নিনোর প্রভাবে সৃষ্ট প্রলয়ঙ্করী বন্যায় সোমালিয়া, ইথিওপিয়া, কেনিয়া, তাঞ্জানিয়া ও উগান্ডায় কমপক্ষে ছয় হাজার মানুষ মারা যায়। পানির নিচে আলজিয়ার্স : ২০০১ সালের ১০ নভেম্বর আলজেরিয়ার উত্তরে ভয়াবহ বন্যায় ৭৬৪ জন নিহত ও ১২৫ জন নিখোঁজ হয়। দেশটির রাজধানী আলজিয়ার্সের কিছু অংশ বন্যার কারণে পুরোপুরি তলিয়ে যায়। এ ঘটনায় প্রধানত বাব-এল-ওয়েদ আবাসিক এলাকায় ৭১৩ জন নিহত হয়েছিল। বিধ্বস্ত মোজাম্বিক : ২০০০ সালের ফেব্রæয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে মোজাম্বিকে নজিরবিহীন বন্যা হয়। এ ঘটনায় ৬৯৯ জন নিহত ও ৯৫ জন নিখোঁজ হয়। প্রায় ৬০ হাজার মানুষকে বন্যাকবলিত এলাকা থেকে নিরাপদ আশ্রয়ে স্থানান্তর করে কর্তৃপক্ষ। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে মোজাম্বিককে বিভক্ত করা লিকুঙ্গো নদীর পানি প্রায় ১২ মিটার (৩৯ ফুট) বৃদ্ধি পায়। পুরো তলিয়ে যায় মোজাম্বিক। সর্বশেষ ১৯৭১ সালে এ ধরনের বন্যা হয়েছিল দেশটিতে। এ ঘটনায় জামবেজিই প্রদেশে ১৬০ জন নিহত ও ১ লাখ ৭৭ হাজার মানুষ গৃহহীন হয়েছিল। পার্শ্ববর্তী দেশ মালাওয়িতে বন্যায় ১৭৬ জন নিহত ও ১৫৩ জন নিখোঁজ হয়। ঘরছাড়া হয় কমপক্ষে দুই লাখ মানুষ। ওয়েবসাইট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বন্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ