Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

ভিউ কার্ডও মানবে হার

প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শামীম চৌধুরী, ধর্মশালা (ভারত) থেকে : বরফে ঢেকে যাওয়া পর্বত, হিমাচল রাজ্যের মানুষের কাছে মোটেও অপরিচিত নয়। হিমালয়ের দেশ বলে হিমাচলকে গণ্য করা হয় বলে হিমবাহ এবং তুষারপাত শীতকালে তাদের জীবন-যাপনে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে। ধর্মশালা থেকে প্রায় ১২শ’ ফুট উচুঁতে ম্যাকলিয়ডগঞ্জ থাকেন যারা, বর্ষা মওশুমেও কাছাকাছি থাকা হিমালয়ের উপরে তুষারপাত, জমাট বরফ আস্তে আন্তে গলে সবুজের সঙ্গে সাদার সমারোহÑ তাদের কাছে এমন দৃশ্য বিস্ময়ের কিছুই নয়। তবে টানা ২ দিন একটানা বর্ষণের মধ্যে, কিংবা ঘন কালো মেঘের মধ্যেও দূর থেকে হিমালয় পর্বতের উপর বরফের আস্তরণ Ñএমন দৃশ্য দেখে যে কোন পর্যটকই পড়বে বিস্ময়ের ঘোরে। গতকাল এমন অকল্পনীয় দৃশ্যই দেখতে হলো ধর্মশালায়। ক্রিকেটের সবচেয়ে সুদৃশ্য ভেন্যুর তালিকায় রাখা হয় কেপটাউনের নিউল্যান্ডসকে, সঙ্গে টেক্কা দিচ্ছে নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউন, নেলসন কিংবা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সেন্ট ভিনসেন্ট। পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে বসে পাহাড়ের সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। কিন্তু গ্রীষ্ম আসি আসি করছে যেখানে, সেখানে পর্বতের উপর বরফের সমারোহÑএমন দৃশ্য কোন ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বসে দেখার সৌভাগ্যÑকল্পনাকেও মানাবে হার। ধর্মশালায় আঁকা বাঁকা লোকালয়ের মধ্যে এক খÐ সমতলভুমিতে গড়ে ওঠা হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট স্টেডিয়ামের স্টেডিয়ামের সৌন্দর্যের যে তুলনাই হয় না অন্য কারো সঙ্গে। বিপদসংকুল পথ, গিরিপথ বেয়ে, নেমে ধর্মশালা স্টেডিয়ামের সৌন্দর্য ম্যাড়মেড়ে দিনকেও দিয়েছে আনন্দ। বাংলাদেশ মিডিয়া তো বটেই, অনুশীলন করতে এসে আইরিশ ক্রিকেটাররাও সেলফিতে প্রকৃতির এমন বিচিত্র ছবি করেছে ফ্রেমবন্দি।
এমন স্টেডিয়ামে টি-২০ বিশ্বকাপের খেলা দিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ আইসিসি। তবে হিমাচল রাজ্য ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন প্রকৃতির অপরুপ রূপের সঙ্গে থাকতে থাকতে নিজেরাও প্রকৃতির মতো সহজ সরল চরিত্রের। ধর্মশালায় টি-২০ বিশ্বকাপের ম্যাচ বসেছে বলে আতিথ্য দিতে স্টেডিয়ামে একদল বাবুর্চি নিয়ে এসেছে কর্তৃপক্ষ। সেখানে বসেই কাঠের চুলোয় হচ্ছে রান্না, ভাত, মাছ, মাংস থেকে শুরু করে গরম গরম রুটি, আলু পরাটা, আরো কতো কি? মিডিয়া বুফে টেবিল সাজানো হচ্ছে এই গরম খাবারে। শুধু মিডিয়ার জন্যই নয়, সাধারণ দর্শকের খাবারও রান্না হচ্ছে স্টেডিয়ামেই। জানেন, এখানে মিনারেল ওয়াটার বোতল কেনার প্রয়োজন নেই। সাপ্লাই ওয়াটারই সুপেয় এবং বিশুদ্ধ পানি পানের জন্য স্টেডিয়ামে বেশ ক’টি স্পটও আছে। পাহাড়ের পাদদেশে স্টেডিয়ামটির অবস্থান বলে দ্রæত পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা নিয়ে ছিল সংশয়। সে সংশয় উড়িয়ে দিয়েছে হিমাচল রাজ্য ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। টানা ১৬ ঘন্টা বৃষ্টির পরও মাত্র আধ ঘন্টার মধ্যে যেভাবে শুকিয়ে মাঠটি খেলার উপযোগী করা হলো, বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ড ম্যাচের ওই ৮ ওভারই ছড়াচ্ছে বিষ্ময়। ধর্মশালা থেকে ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচ চলে গেলেও হিমাচল রাজ্য ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ভিউ কার্ডের চেয়েও সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশে দারুন স্থাপত্য শৈলীর স্টেডিয়াম উপহার দিয়ে পাচ্ছে বাহাবা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভিউ কার্ডও মানবে হার

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ