Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

যাত্রীদের জীবন নিয়ে ছেলেখেলা করেছে ভারতীয় রেল?

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০১৭, ১২:০০ এএম

মুজফ্্ফরনগরে দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৩
ভারতের উৎকল এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার নেপথ্যে কি দায়ী রেল? প্রাথমিক তদন্তে সেই সম্ভাবনার কথাই জোরালভাবে উঠে আসছে। শনিবার মুজফ্ফনগরের কাটৌলিতে বেলাইন হয় উৎকল এক্সপ্রেস। দুর্ঘটনার প্রাথমিক ময়নাতদন্তে কাঠগড়ায় ভারতীয় রেল। রেলের বিরুদ্ধে গুরুতর গাফিলতির অভিযোগ উঠছে। জানা গেছে, ওই লাইনে মেরামত কাজ চলছিল। এ ব্যাপারে রেল চালককে কিছুই জানানো হয়নি বলে অভিযোগ। ফলে তিনি আগে থেকে সতর্ক ছিলেন না। প্রতি ঘণ্টায় একশো কিলোমিটার গতিতে ট্রেন চালাচ্ছিলেন চালক। সাধারণত ট্র্যাকে মেরামতি কাজ চললে ট্রেনের গতি কমিয়ে দেওয়া হয়।
কাটৌলির স্টেশন সুপারিনটেন্ডেড রাজিন্দর সিংয়ের দাবি, প্রযুক্তিগত সমস্যার কথা তার জানা নেই। উৎকল এক্সপ্রেসের আগে দুটি ট্রেন ওই ট্র্যাক দিয়ে ধীর গতিতে চলেছিল। তাহলে প্রশ্ন উঠছে, উৎকল এক্সপ্রেসের বেলায় তা হল না কেন? রেলের দাবি, সিগন্যালিংয়ের জন্য হতে পারে আগের ট্রেন ধীর গতিতে চলেছে।
রেলওয়ে বোর্ডের (ট্রাফিক) সদস্য মহম্মদ জামশেদ স্বীকার করেছেন, তারা দুর্ঘটনাস্থল থেকে মেরামতির যন্ত্রাংশ পেয়েছেন। দু’জন রেলকর্মীর মধ্যে কথোপকথনের একটি অডিও ক্লিপ মিলেছে। তা স্পষ্ট যাত্রীদের জীবন নিয়ে গাফিলতি করেছিল রেল। এদিনই রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু রেল বোর্ডের চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দিয়েছেন, কার গাফিলতি, তা আজকের মধ্যেই প্রাথমিক তদন্তে খুঁজে বের করতে হবে।
এদিকে উত্তরপ্রদেশে ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৩। আহত ৬০-এর বেশি। জোর কদমে চলছে উদ্ধারকাজ। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে এনডিআরএফ-এর দল। দুর্ঘটনার কারণ খুঁজতে তদন্তে নেমেছে এটিএস। মুজফ্ফনগরের কাউতালি এলাকায় পুরী-হরিদ্বার-কলিঙ্গ উৎকল এক্সপ্রেসের ১৪টি কামরা লাইনচ্যুত হয়। ঘটনায় মৃত্যু হয় অন্তত ২৩ জনের। আহতের সংখ্যা ৪০ ছাড়িয়েছে। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
দুর্ঘটনায় মৃতদের পরিবার পিছু ক্ষতিপূরণ বাবদ সাড়ে তিন লাখ টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে রেল। গুরুতর আহতদের জন্য ৫০ হাজার টাকা ও সামান্য আহতদের জন্য ২৫ হাজার টাকা করেও দেওয়া হবে।
অন্যদিকে, দুর্ঘটনার খবরে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি নিজে রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভুর সঙ্গে দফায় দফায় কথা বলে পরিস্থিতির খোঁজ নিচ্ছেন। ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন কংগ্রেস সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী। সূত্র : জি নিউজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ