Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

নানা সমস্যায় জর্জরিত গৌরীপুর রেলওয়ে জংশন পরিদর্শনে এমপি

| প্রকাশের সময় : ২৩ আগস্ট, ২০১৭, ১২:০০ এএম

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা ঃ ট্রেন যাত্রীদের বিভিন্ন সমস্যা দূরীকরণে¡ নাজিম উদ্দিন আহামেদ এমপি মঙ্গলবার ময়মনসিংহের গৌরীপুর রেলওয়ে জংশন পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি ট্রেনযাত্রী, স্টেশনের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে স্টেশনের বিভিন্ন সংকট ও সমস্যা সম্পর্কে অবগত হন। পরিদর্শনকালে এমপি সাংবাদিকদের বলেন গৌরীপুর জংশন একটি প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী স্টেশন। সারাদেশের সাথে গৌরীপুর তথা বৃহত্তর ময়মনসিংহ, ঢাকা, সিলেট, চট্রগ্রাম, সুনামগঞ্জসহ বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের যোগাযোগের ক্ষেত্রে এই স্টেশনটির গুরুত্ব অপরিসীম। ট্রেনের টিকেট বিক্রি ও মালামাল বুকিংয়ের মাধ্যমে এ স্টেশনে প্রতিবছর সরকারের আয় হচ্ছে প্রায় দেড় কোটি টাকা। কিন্তু দুঃখের বিষয় পার্শ¦বর্তী অন্যান্য রেল স্টেশনগুলো আধুনিকায়ন করা হলেও অজ্ঞাত কারনে গৌরীপুর স্টেশনটিতে কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। অতি সম্প্রতি জাতীয় সংসদের অধিবেশনের বক্তব্যে তিনি গৌরীপুর স্টেশন আধুনিকায়ন ও জনবল সংকট নিরসনে রেলমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এমপি বলেন এ স্টেশনটিকে আধুনিকায়নের লক্ষ্যে বর্তমানে তিনি জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। গৌরীপুর স্টেশন মাস্টার অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ স্টেশন দিয়ে ঢাকা, চট্রগ্রাম, ভৈরব, জারিয়া ও মোহনগঞ্জ রেলপথে প্রতিদিন মোট ২৮ টি আপ ও ডাউন ট্রেন চলাচল করে। ট্রেনের টিকিট বিক্রি ও বিভিন্ন মালামাল বুকিং করে সরকারের প্রতি মাসে আয় হয় ১৫ থেকে ২০ লক্ষ টাকা। এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি গৌরীপুর জংশন দ্রæত আধুনিকায়ন করা হোক।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ