Inqilab Logo

বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯, ১১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ঘাটে যানজট

যানবাহনের চাপ নদীতে প্রবল স্রোত ও ফেরি বিকল

| প্রকাশের সময় : ২৭ আগস্ট, ২০১৭, ১২:০০ এএম



আরিচা সংবাদদাতা : যানবাহনের চাপ, নদীতে প্রবল স্রোত এবং ঘন ঘন ফেরি বিকল হওয়ায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে স্বাভাবিক ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। দু’পারেই সৃষ্টি হয়েছে যানজট। কোরবানির ঈদ উপলক্ষ্যে পশুবহনকারী ট্রাকগুলো আটকে থাকছে দৌলতদিয়া ঘাটে। যাত্রীদুর্ভোগের পাশাপাশি, গরমের মধ্যে ঘাটে আটকে পড়া ব্যবসায়ীরা গরু নিয়ে চরম আতংকের মধ্যে রয়েছেন। কুষ্টিয়া এলাকায় কোরবাণীর গরুবহণকারী ট্রাক থেকে চাঁদাবাজির অভিযাগ পাওয়া গেছে।
ঈদের আগে এ নৌরুটে ফেরি বৃদ্ধি না করলে যানজট পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করবে বলে যানবাহন শ্রমিকরা মনে করছেন। এমতাবস্থা অব্যাহত থাকলে ঈদুল আযহায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীদের নির্বিগ্নে ঘরে ফেরা কঠিন হয়ে পড়বে বলে ধারনা করছেন যাত্রীরা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪শ’ ট্রাকাসহ ৬শতাধিক যানবাহন ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে।
বিআইডবিøউটিসি সূত্র জানায়, বর্ষা মৌসুমে লঞ্চ পারাপারের বাসগুলো ফেরিতে পারাপার হওয়ায় এ নৌ-রুটে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। যানবাহনের তুলনায় ফেরি কম হওয়ায় এ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে আসন্ন ঈদুল আযহা উপলক্ষে কোরবানির পশুবহণকারী ট্রাকের সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে এসব ট্রাক দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাট দিয়ে পার হয়ে রাজধানী ঢাকায় প্রবেশ করছে। গতকাল শনিবার দুপুরে দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাট সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ট্রাকসহ যাত্রীবাহি যানবাহনের দীর্ঘ লাইন পাটুরিয়া প্রান্তে দুই সাড়িতে ২কিলোমিটার এবং দৌলতদিয়া প্রান্তে বাস ও কোরবানির গরুবহণকারী ট্রাকগুলো ঘাট এলাকা থেকে ফিডমিল পর্যন্ত ৪কিলোমিটার ছাড়িয়ে গেছে।
বাস শ্রমিকদর সাথে আলাপ করে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে আসা নৈশ কোচগুলো পরের দিন শনিবার সকালে পারাপার হয়েছে। অন্যান্য পণ্যবাহি ট্রাকগুলো ৩/৪দিন করে অপেক্ষার পর ফেরি পারাপার হয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফেরির এক মাস্টার জানান, নদীতে অত্যাধিক স্রোতের কারণে ফেরি পারাপার দ্বিগুণ সময় লাগছে। এতে স্বাভাবিক ফেরি চলাচল ব্যহত হচ্ছে। আগে একটি ফেরি পাটুরিয়া থেকে ছেড়ে দৌলতদিয়া পৌছাতে ৩৫/৪০মিনিট সময় লাগতো এখন ৮০/৯০মিনিট সময় লাগছে।
এছাড়া ফেরিগুলো ইঞ্জিনের পুরো শক্তি ব্যবহার করে স্রোতের বিপরীতে চলতে গিয়ে প্রতিদিনই দু’একটি ফেরি বিকল হয়ে পড়ছে। ঘন ঘন ফেরি বিকল হওয়ায় এ নৌরুটে ফেরি স্বল্পতাও দেখা দিয়েছে। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে চলাচলরত ছোট বড় মোট ১৬টির মধ্যে ১৩টি ফেরি চলাচল করছে। রো-রো ফেরি বীর শ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান, বীর শ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান এবং কে -টাইপ ফেরি বনলতা ইঞ্জিন সমস্যার কারণে পাটুরিয়া ঘাটে ভাসমান কারখানায় মেরামতে রয়েছে। এমতাবস্থায় স্বল্পসংখ্যক ফেরি দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।
বিআইডবিøউটিসি’র ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার আজমল হোসেন জানান, আসন্ন ঈদুল আযহা উপলক্ষে আরো তিনটি ফেরি এ বহরে যুক্ত হবে। দুটি ফেরি পাটুরিয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছে। ঈদের আগে আরো একটি ফেরি আসবে। নদীতে স্রোতের কারণে সময় বেশী লাগছে। আবার যানবাহনের চাপও বেড়েছে। ফেরি সংখ্যা বাড়লে হয়তো এ যানজট থাকবে না বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ