Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৫ আশ্বিন ১৪২৪, ২৮ যিলহজ ১৪৩৮ হিজরী
শিরোনাম

বিক্ষোভে ফেটে পড়েছে এশিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা, গণধর্ষণ, অগ্নিসংযোগের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ফেটে পড়েছে এশিয়া। বিভিন্ন দেশে গত শুক্রবার বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় তারা অবিলম্বে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর অকথ্য নির্যাতন বন্ধের দাবি জানান। বিক্ষোভে অংশ নেয়া অনেক মানুষকে অঝোরে কাঁদতে দেখা গেছে। বিক্ষোভ হয়েছে মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান ও অন্যান্য স্থানে। ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় বিক্ষোভে দেখা গেছে রোহিঙ্গাদের রক্ষা কর- সেøাগান সম্বলিত প্লাকার্ড। পাকিস্তানের করাচিতে বিক্ষোভে অংশ নেন কয়েক হাজার মুসলিম। ঢাকার বিক্ষোভে অঝোরে কাঁদতে দেখা গেছে এক বিক্ষোভকারীকে। এমনকি র‌্যালিতে নেমে আসে শিশুরা পর্যন্ত। অং সান সুচির প্রতি নিন্দা জানিয়ে ব্যানার দেখা যায় নারী বিক্ষোভকারীদের হাতে। ফিলিপাইনের ম্যানিলায় মিয়ানমার দূতাবাসের সামেন বিক্ষোভ করেন বিপুল সংখ্যক মানুষ। এ সময় তাদেরকে দেখা যায়, রাস্তায়ই নামাজ আদায় করছেন। সামনে রেখে দিয়েছেন রোহিঙ্গাদের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে লেখা পোস্টার। খবরে বলা হয়, দেশে দেশে এসব বিক্ষোভ থেকে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সরকারের আচরণে নিন্দা জানানো হয় কড়া ভাষায়। সর্বশেষ রিপোর্ট অনুযায়ী, গত দু’সপ্তাহে নির্যাতনের হাত থেকে প্রাণে রক্ষা পেতে রাখাইন রাজ্য থেকে কমপক্ষে দুই লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। এ হিসাব জাতিসংঘের। রাখাইনে যে পরিমাণ রোহিঙ্গা বাস করেন এ সংখ্যা তার এক-তৃতীয়াংশ। জাতিসংঘের হিসাবেই রাখাইনে কমপক্ষে এক হাজার মানুষকে হত্যা করা হয়েছে। বিক্ষোভে যেসব প্লাকার্ড ও ব্যানার ব্যবহার করা হয় তাতে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অং সান সুচির তীব্র সমালোচনা করা হয়। সিএনএন।

 


Show all comments
  • sento ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ৬:৫৯ এএম says : 0
    kar kasa bechar chibo? allaha kasa chai lam
    Total Reply(0) Reply
  • towhid chy ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ৯:১৫ এএম says : 1
    ALLAHU AKBAR,ALLAH SAKAL MOSLIMDER SAHADDHO & RAKKHA KAOROON............
    Total Reply(0) Reply
  • ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১০:৪৬ পিএম says : 0
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।