Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ০৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

তেল সঙ্কটে পড়বে মৎস্য খাত

উ. কোরিয়ার ওপর নতুন বাণিজ্যিক নিষেধাজ্ঞা

ইনকিলাব ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

 নিজেদের ষষ্ঠ ও সবচেয়ে শক্তিশালী পারমাণবিক পরীক্ষা চালানোর ফলে ফের জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছে উত্তর কোরিয়া। ৩ সেপ্টেম্বর চালানো ওই পরীক্ষার কারণে এবার দেশটির টেক্সটাইল রপ্তানি ও অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানির ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। সোমবার নিরাপত্তা পরিষদের সকল সদস্যের সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে দেশটির ওপর এসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এই নিয়ে ২০০৬ সাল থেকে দেশটির ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক কর্মসূচীকে কেন্দ্র করে ১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদ নবমবারের মতো সর্বসম্মতভাবে উত্তর কোরিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলো। খবরে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার ক্রমবর্ধমান অস্ত্র কর্মসূচি প্রতিরোধের চেষ্টা করে যাচ্ছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা বিশ্ব। সর্বশেষ প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে দেশটিতে তেল রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বিবেচনা করা হচ্ছে। তবে এ ধরনের পদক্ষেপ পিয়ংইয়ংয়ের অস্ত্র কর্মসূচিকে প্রভাবিত করার আগে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করবে দেশটির জাহাজ শিল্প ও মৎস্যজীবীদের। উত্তর কোরিয়ায় তেল রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা অস্ত্র কর্মসূচির দ্রæত সমাপ্তি টানতে পারবে কিনা, বিষয়টি স্পষ্ট নয়। তবে এ নিষেধাজ্ঞা অবৈধভাবে মৎস্য আহরণের সঙ্গে জড়িত উত্তর কোরিয়ার বিশাল সংখ্যক মাছ ধরা নৌযানের ওপর উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলবে। দরিদ্র দেশটির খাদ্যের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উৎস সামুদ্রিক মৎস্য। উত্তর কোরিয়ার দীর্ঘস্থায়ী খাদ্য ঘাটতি মোকাবেলায় বহু জেলেকেই মৎস্য আহরণ বাড়ানোর জন্য দেশটির সরকার নির্দেশ দিয়েছে। কিন্তু জ্বালানি ছাড়া তারা যেমন মাছ ধরতে যেতে পারবে না, তেমনি পাইকারি বিক্রেতাদেরও পিয়ংইয়ংয়ে সরবরাহ পৌঁছে দেয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে। দেশটির ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি করা প্রাথমিক খসড়া প্রস্তাবটি আরো অনেক কঠোর ছিল, কিন্তু উত্তর কোরিয়ার মিত্র ও নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী দুই সদস্য চীন ও রাশিয়ার সমর্থন আদায়ের জন্য প্রস্তাবটি অনেকটা নমনীয় করা হয় বলে জানিয়েছে। ২০১৬ সালে উত্তর কোরিয়ার প্রধান রপ্তানি দ্রব্য কয়লা ও অন্যান্য খনিজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল নিরাপত্তা পরিষদ। এবার দেশটির দ্বিতীয় প্রধান রপ্তানি পণ্য বস্ত্রের ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হল। রয়টার্স, নিক্কেই এশিয়ান রিভিউ।

 


Show all comments
  • ফজলুল হক ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১১:৫৭ এএম says : 1
    নিষেধাজ্ঞা না দিয়ে আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টির সমাধান করলে ভালো হতো
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ