Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৯ আশ্বিন ১৪২৪, ০৩ মুহাররম ১৪৩৮ হিজরী

পরিস্থিতি উদ্বেগজনক বগুড়ায় বাড়ছে নারী নিগ্রহের ঘটনা

| প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

বগুড়া ব্যুরো : পুলিশের উদাসীনতা ও নিষ্ক্রিয়তায় অন্যসব অপাধের পাশাপাশি ইদানীং নারী নিগ্রহের ঘটনা বাড়ছে। জনপ্রতিনিধি ও সমাজকর্মী এবং সচেতন মানুষের মতে নারী নিগ্রহের বর্ধিতহারের ঘটনা প্রবাহ এখন উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। সম্প্রতি সোনালী আকতার নামের সদ্য এসএসসি পাশ এক তরুনীকে ধর্ষণ ও একই সাথে তার মাকে শারীরীক নির্যাতনের ঘটনায় বগুড়ায় সুপরিচিত মাফিয়া পরিবারের ছেলে চাঁদাবাজ , সন্ত্রাসী তুফান সরকারের গ্রেফতার ও কারাবাসের বহুল অলোচিত ঘটনার পর ধারণা করা হয়েছিল হয়তো নারী নিগ্রহের ঘটনা কমবে। কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে, বগুড়ায় যা ধারণা করা হচ্ছিল ঘটছে তার বিপরীত ঘটনা । অর্থাৎ বাড়ছে নারী নির্যাতনের ঘটনা ।
উদাহরন দিয়ে একজন মানবাধিকার কর্মি জানালেন বগুড়ার ফুলতলা এলাকায় অতি সম্প্রতি কমেলা বেগম (৫৫) নামের এক মহিলা এরাকার সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ীর হাতে প্রহ্যত হয়। দিন দুপরে কমেলার বাড়ির সামনেই সন্ত্রাসীরা মেরে তার একটা পা’ ভেঙ্গে দেয়। পাড়া প্রতিবেশিরা পরে তাকে বগুড়ার শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। হাসপাতালে মহিলার ভাঙ্গা পা’ এর অপারেশনের পর তাকে সর্জিক্যাল ওয়ার্ডে ফলোআপ চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। নির্যাতিতা এই মহিলার পরিবারের পুরুষ সদস্যরা এখন সন্ত্রাসীদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে, তারা পুলিশের কাছে কোনো সহযোগিতা না পেয়ে পুরোপুরি হতাশ। পরিস্থিতির ফেরে কমেলাও এখন বলতে চাননা , কে তাকে মেরেছে , কেনইবা মেরেছে । ফলে ঘটনাটি নিয়ে নড়া চড়া করতে ইচ্ছুক মানবাধিকার কর্মিও কিছু করতে পারছেনা ।
আরেকটি ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বগুড়া পৌর এলাকার ৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইব্রাহীম হোসেন জানান , একদল সন্ত্রাসীর চাঁদার দাবী পুরণ না করায় তাদের হাতে প্রহ্যত হয়েছেন মালগ্রামের গৃহবধু কুলসুম বেগম। নির্মম ভাবে প্রহ্যত হয়ে তিনিও হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। পুলিশ এই ঘটনায় মামলা না নেওয়ায় একজন আইনজীবীর সহায়তায় বগুড়ার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মারধরকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন গৃহবধু কুলসুম ।
মামলা সুত্রে জানা যায় , বগুড়া শহরের মালগ্রাম এলাকায় বসবাসকারি গৃহবধু কুলসুম জীবীকার তাগিদে নিজের বাড়ির সামনে একটি মুদি দোকান স্থাপন করে ব্যবসা করে কিছুটা সচ্ছলতা অর্জন করলে চাঁদাবাজদের নজরে পড়ে যায় সে। চাঁদাবাজরা তার কাছে চাঁদা চাইলে তিনি তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় গত ৫ সেপ্টেম্বর মোঃ রাকু, মোঃ পাপ্পু ও হারুন নামের ৪ চাঁদাবাজ তাকে বেদম মারপিট করে গুরুতর ভাবে আহত করে। ঘটনার পর এলাকাবাসি তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় ।
১০ সেপ্টেম্বর বগুড়া প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রুমিছা খাতুন (১৮) নামের এক কলেজ পড়–য়া তরুনী অভিযোগ করেন, বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটরা ইউপি চেয়ারম্যান মোরশেদুল বারী বøাকমেইন করে দীর্ঘদিন ধরে যৌন নিপীড়ন করেছেন তাকে। এক পর্যায়ে অতিষ্ট হয়ে শাজাহানপুর থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ বহুরকম তালবাহানা করে তাকে মামলা থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করে। কিন্তু মামলার ব্যাপারে তিনি অনঢ় অবস্থান নিলে পুলিশ মামলা রেকর্ড করে বটে, তবে তাদের ভুমিকা মামলা রেকর্ডের মধ্যেই সীমিত রেখেছে । আর পুলিশের নিরব ভুমিকার সুযোগ নিয়ে ধর্ষক ও তাদের প্রভাবশালী সহযোগিরা তাকে ও তার পুরো পরিবারকে হুমকি দিচ্ছে ।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।