Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ০৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

ব্যাংকে পারিবারিক পরিচালক দ্বিগুণ : মেয়াদ হবে ৯ বছর

সংসদে বিল উত্থাপন

| প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : একক পরিবারের দু’জনের স্থলে চারজনকে একটি ব্যাংকের পরিচালক হওয়ার সুযোগ করে দিতে বিদ্যমান ব্যাংক-কোম্পানী আইন সংশোধনের আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে ব্যাংক- কোম্পানী (সংশোধনী) বিল-২০১৭ উত্থাপিত হয়েছে। প্রস্তাবিত বিলে পরিচালকরা ধারাবাহিকভাবে টানা নয় বছর পরিচালক পদে থাকতে পারবেন বলে বিধান রাখা হয়েছে। বিলটি উত্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। পরীক্ষা করে সংসদে রিপোর্ট দেয়ার জন্য বিলটি অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। বিলটি পাস হলে প্রথম পর্ষদের মেয়াদ এক বছরের বিদ্যমান বিধান এবং প্রতিবছর এক-তৃতীয়াংশ পরিচালকের পদত্যাগের বাধ্যবাধকতাও আর থাকবে না।
বিলটি আনার উদ্দেশ্য সম্পর্কে অর্থমন্ত্রী সংসদকে জানান, কোনো পরিবারের সদস্যদের মধ্যে যদি কেউ আলাদাভাবে ব্যবসা পরিচালনা করেন এবং নিজেই করদাতা হন তাহলে তাকে পরিবারের উপর নিভূরশীল বলা যায় না। বর্তমান বিধানে একক পরিবার থেকে পরিচালক পদে নিয়োগযোগ্য সদস্য সংখ্যা দুইজনে সীমিত থাকায় এরকম সদস্যদের পরিচালক হওয়ার সুযোগ সীমিত। একক পরিবার থেকে সর্বোচ্চ দুই জনের স্থলে চারজনকে সুযোগ দেয়া হলে এ সমস্যা অনেকাংশে দূরীভূত হবে। মুহিত আরও জানান, কোম্পানী আইন, ১৯৯৪-এর সংশ্লিষ্ট বিধানে পরিচালক পদের মেয়াদের ব্যাপ্তি সুনির্দিষ্ট করা হয়নি। এছাড়া কোম্পানী আইনের বিধান অনুযায়ী প্রথম পর্ষদের মেয়াদ এক বছর এবং এর পরবর্তীতে প্রতি বছর এক-তৃতীয়াংশ পরিচালকের পদত্যাগের বিধান রয়েছে। ফলে পরিচালকরা ধারাবাহিকভাবে কাজ কর্রা সুযোগ পাচ্ছেন না। নতুন প্রতিষ্ঠিত ব্যাংকগুলোর সমস্যা বিবেচনায় নিয়ে সকল ক্ষেত্রেই যাতে ধারাবাহিকভাবে সর্বোচ্চ নয় বছর পর্যন্ত পরিচালক পদে থাকার সুযোগ সৃষ্টি হয়, সেই লক্ষ্যে সংশোধনী প্রস্তাব করা হয়েছে।
অর্থমন্ত্রী বলেন, বিদ্যমান ব্যাংক- কোম্পানী আইন, ১৯৯১ সর্বশেষ ২০১৩ সালে সংশোধন করা হয়। ওই সংশোধনীর পরেও কয়েকটি ধারায় অস্পষ্টতা বিদ্যমান। মূলতঃ পরিচালনা পরির্ষদের পরিচালক সংক্রান্ত তিনটি ধারায় বিদ্যমান অস্পষ্টতা দূরীকরণ বা বিধান সংশোধন করা না হলে ব্যাংকসমূহের গতিশীলতা বৃদ্ধির প্রচেষ্টা ব্যাহত হতে পারে বলে আশঙ্কা থেকে যায়। তিনি জানান, ব্যাংক-কোম্পানীর পরিচালকরা সাধারণভাবে বার্ষিক সভায় শেয়ার হোল্ডারদের দ্বারা নির্বাচিত হন কিংবা মধ্যবর্তীকালে শূন্য পদের বিপরীতে পর্ষদ সভায় মনোনীত হয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে কোন পর্যায়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন গ্রহণ করা হবে তা স্পষ্টিকরণের স্বার্থে পরিবর্তন আনয়নের প্রস্তাব করা হয়েছে।
প্রস্তাবিত বিলে বলা হয়েছে, এই বিলটি আইনে কার্যকর হবার পর কোনো ব্যক্তি কোনো ব্যাংক- কোম্পানীর পরিচালক পদে একাধিক্রমে নয় বছরের বেশি থাকতে পারবেন না। মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তিন বছর অতিবাহিত না হলে তিনি উক্ত ব্যাংক- কোম্পানীর পরিচালক পদে পুনঃনিযুক্ত হবার যোগ্য হবেন না। অর্থাৎ তিন বছর পর আবারও পরিচালক হওয়ার সুযোগ রাখা হয়েছে বিলটিতে।
বিএসইসি’র বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জাতীয় সংসদে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বার্ষিক প্রতিবেদন- ২০১৫-১৬ উপস্থাপন করেছেন। এছাড়া সংসদে ৬৬টি অডিট রিপোর্ট ও ১৩টি হিসাব রিপোর্টসহ মোট ৭৯টি অডিট ও হিসাব রিপোর্ট উপস্থাপন করেন তিনি।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ