Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাপানের ওপর দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করল উত্তর কোরিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

জাপানের ওপর দিয়ে আবারো ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করলো উত্তর কোরিয়া। গতকাল শুক্রবার জাপানের ওপর দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে উত্তর কোরিয়া। ক্ষেপণাস্ত্রটি প্রশান্ত মহাসাগরে গিয়ে পড়ে। উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন করে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা আরোপের জবাব দিতেই এই ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করলো পিয়ংইয়ং।
একের পর এক পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা চালানোয় দেশটির ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ মিসাইল ও বø্যাস্টিক অস্ত্র ব্যবহারের কারণে উত্তর কোরিয়ার ওপর আট ধরনের নিষেধাজ্ঞা জারি করার পর পরই দেশটি নতুন করে মিসাইল নিক্ষেপ করলো। উত্তর কোরিয়ার এখন পর্যন্ত যে ৬টি মিসাইল নিক্ষেপ করেছে তার মধ্যে এটাই সবচেয়ে শক্তিশালী ও হাইড্রোজন বোমা বহনে সক্ষম বলে দাবি করা হচ্ছে।
মিসাইল নিক্ষেপের ঘটনার পর শুক্রবারই জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ জরুরী বৈঠকে ডেকেছে।
মার্কিন প্রশান্ত মহাসাগরীয় কমান্ড উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানায়, এটি উত্তর আমেরিকার কোনো অঞ্চলের জন্য হুমকি নয়। মার্কিন গুয়াম ঘাঁটির জন্যও এটা হুমকি নয়। এই গুয়াম ঘাঁটি ধ্বংসের হুমকি দিয়ে রেখেছে উত্তর কোরিয়া।
দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রটি তিন হাজার ৭০০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করেছে। সর্বোচ্চ ৭৭০ কিলোমিটার উপর দিয়ে গেছে ক্ষেপণাস্ত্রটি।
বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, গতকাল জাপানের ওপর দিয়ে ওই ক্ষেপণাস্ত্র যাওয়ার সময় জাপানিদের মধ্যে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। এ সময় সতর্কতার সাইরেন বাজানো হয়। মুঠোফোনে পাঠানো হয় জরুরি বার্তাও। হোক্কাইডো দ্বীপে লাউডস্পিকারে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার কথা জানানো হয়। প্রায় দুই মিনিটে ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপান ভূখন্ড পেরিয়ে যায়। জাপানের ভূখন্ডের ক্ষেপণাস্ত্রের কোনো অংশ পড়েনি বা কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে।
তিনি বলেন, এটা মেনে নেওয়া যায় না। উত্তর কোরিয়ার এই কর্মকাÐ বিশ্ব শান্তির বিরুদ্ধে মারাত্মক উসকানি। এই আচরণ ভবিষ্যতে দেশটির জন্য ভালো কিছু বয়ে আনবে না।
উত্তর কোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ইয়ং মু জিন বলেন, ‘উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে কোন নিষেধাজ্ঞা দেশটি পরোয়া করে না এবং মিছামিছি কাউকেই হুমকি প্রদান করে না, তার প্রমাণ দিতে মিসাইলটি নিক্ষেপ করা হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘উত্তর কোরিয়ার ওপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা জারির পর মিসাইল নিক্ষেপ যুক্তরাষ্ট্রের জন্য বেদনা ও কষ্টদায়ক হবে।’
নিরাপত্তা পরিষদ জরুরি বৈঠক
জাপানের ওপর দিয়ে উত্তর কোরিয়ার সর্বশেষ ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের বিষয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ গতকাল শুক্রবার জরুরি বৈঠক হওয়ার কথা। পরিষদের প্রেসিডেন্ট এ ঘোষণা দেন। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ইথিওপীয় প্রেসিডেন্ট জানান, উত্তর কোরিয়ার সর্বশেষ ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র ও জাপান নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের আবেদন জানিয়েছে। বৈঠকটি শুক্রবার বিকেল তিনটায় (গ্রিনিচ মান সময় ১৯০০টা) অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। কূটনীতিকরা জানান, বিষয়টি নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক হবে।
উত্তর কোরিয়ার ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচি প্রশ্নে পিয়ংইয়ংয়ের ওপর নিরাপত্তা পরিষদের অষ্টম দফার অবরোধ আরোপের পর দেশটি সর্বশেষ এ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালালো। উল্লেখ্য, বুধবার উত্তর কোরিয়া তাদের বিরুদ্ধে ‘অশুভ’ অবরোধ আরোপের জবাবে পিয়ংইয়ংয়ের পারমানবিক কর্মসূচি জোরদারের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছিল। খবর এএফপি।
পদক্ষেপ নেয়ার আহবান যুক্তরাষ্ট্রের
উত্তর কোরিয়ার বেপরোয়া ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের লাগাম টেনে ধরতে ‘সরাসরি পদক্ষেপ’ নিতে গত বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্র চীন ও রাশিয়ার প্রতি আহবান জানিয়েছে। পিয়ংইয়ং একটি ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর পর তারা এ আহবান জানালো। ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের ওপর দিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে গিয়ে পড়ে। খবর এএফপি’র।
মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন এক বিবৃতিতে বলেন, একদিকে ‘চীন তাদের বেশীর ভাগ তেল উত্তর কোরিয়ায় সরবরাহ করে থাকে। অপরদিকে রাশিয়া হচ্ছে উত্তর কোরিয়ার বিশাল শ্রমবাজার। কোরিয়ার এমন বেপরোয়া ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ কোনভাবেই মেনে নেয়া হবে না এই ব্যাপারে রাশিয়া ও চীনকে তাদের নিজ দেশের পক্ষ থেকে পিয়ংইয়ংয়ের বিরুদ্ধে সরাসরি কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার মাধ্যমে অবশ্যই বুঝিয়ে দিতে হবে।’ খবর এএফপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাপান

২৭ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ