Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৭, ০৯ কার্তিক ১৪২৪, ০৩ সফর ১৪৩৯ হিজরী

পরিবারহীন রোহিঙ্গা শিশুদের দত্তক নেয়া দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করুন -মুসলিম লীগ

| প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া পরিবার বিহীন রোহিঙ্গা শিশুদের দেশের আগ্রহী পরিবারগুলোকে দত্তক দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণের আহŸান জানিয়েছে বাংলাদেশ মুসলিম লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট বদরুদ্দোজা সুজা ও মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের। গতকাল এক যুক্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ইউনিসেফ এর পর্যবেক্ষণ রিপোর্ট অনুযায়ী দেশে রোহিঙ্গা পরিবার বিহীন শিশুর সংখ্যা বর্তমানে ১৩০০ জন। সর্বশেষ হিসেবে স্বাভাবিক ভাবেই এ সংখ্যা অনেক বাড়বে। এই কোমল মতি শিশুদের জন্য একই সঙ্গে পরিবার ও দেশ হারানোর মানসিক ধকল কাটিয়ে ওঠা সহজ ব্যাপার নয়। একটি পরিবারের সহচর্য্য ও আন্তরিক ভালবাসাই পারে এই শিশুদের মানসিক ভারসাম্য বজায় রেখে পরিণত হয়ে ওঠার পথ সুগম করতে। এই রকম পরিবার বিহীন শিশুদের আইনগত ভাবে দত্তক নেয়ার জন্য দেশের বিশেষ করে নিঃসন্তান দম্পতিদের জরুরী ভিত্তিতে এগিয়ে আসার আহŸান জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।
পাশাপাশি আইনগত বিধি নিষেধ এর জটিলতার বেড়াজালের কথা ভেবে আগ্রহ থাকা অনেক পরিবারই উৎসাহ হারিয়ে ফেলতে পারে বিধায়, আইনগত ভাবে দত্তক নেয়ার সহজ পদ্ধতি সম্পর্কে দেশের জনগণকে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে অবহিত ও আইনগত প্রক্রিয়া সর্ম্পন্ন করতে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও সহায়তা প্রদানের জন্য ইউনিসেফ বাংলাদেশ এবং শিশু ও পরিবার বিষয়ক এন.জি.ও সমূহের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ। পরিবার বিহীন রোহিঙ্গা শিশুদের দত্তক দেয়া-নেয়া বিষয়ে আইনগত জটিলতা সহজী করনের উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবী জানিয়ে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন সীমিত সামর্থ্য নিয়েও রোহিঙ্গা ইস্যুতে দেশের সরকার ও জনগণ যে মানবিকতার নজীর রেখেছে তা অন্যান্য দেশের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। এই বিশেষ ক্ষেত্রে দত্তক গ্রহণের প্রক্রিয়া সহজী করণের সরকারী উদ্যোগ আন্তর্জাতিক বিশ্বে বাংলাদেশের মর্যাদা ও ভাবমূর্তি অনেক বাড়িয়ে দেবে।

 


Show all comments
  • Reja Hafiz ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১১:৩৭ এএম says : 0
    আমি অভিভাবকহীন একটা রোহিঙ্গা শিশু দত্তক নিতে চাই....
    Total Reply(0) Reply
  • .Sabbir Ahammed ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১১:৪৯ এএম says : 0
    পরিবারহীন শিশুদের জন্য ঊক্ত প্রস্তাব সমস্ত মুসলিমেরই মনের কথা । আমরা আশা করি 'মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ' বিষয়টি মানবিক এবং ইসলামিক দুটি বি্যয়ই বিবেচনা করে দেখবেন।আল্লাহ আমাদের সবাইকে রহমাত এবং মাগফিরাত দান করুন । আমিন ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।