Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৭, ০৯ কার্তিক ১৪২৪, ০৩ সফর ১৪৩৯ হিজরী

রোহিঙ্গা সঙ্কটের দায় আন্তর্জাতিক স¤প্রদায়কে নিতে হবে : পুতিনকে সউদী বাদশা

ইনকিলাব ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ৬ অক্টোবর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

রাশিয়া সফররত সউদী বাদশা সালমান বলেছেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিম স¤প্রদায় যে পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে তার দায় আন্তর্জাতিক স¤প্রদায়ের নেওয়া উচিত। গতকাল রাশিয়া সফরে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনকে একথা বলেছেন তিনি।
গতকাল সউদী বাদশা রাশিয়া সফরে মস্কো পৌঁছান। এসময় মস্কোতে বাদশাহ সালমানকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এরপর পুতিন ও বাদশা সালমান দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বসেন। বৈঠকে রুশ প্রেসিডেন্ট সউদী আরবের সঙ্গে দেশটির ঐতিহাসিক সম্পর্কের প্রশংসা করেন। পুতিন বলেন, আমি বিশ্বাস করি আপনার (সউদী বাদশা) সফর আমাদের সাধারণ সম্পর্ককে আরও উন্নীত করবে। এ সময় সউদী বাদশা উষ্ণ অভ্যর্থনার জন্য রাশিয়ার প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানান।
পুতিনের সঙ্গে আলোচনায় সউদী বাদশা ইরাকের আঞ্চলিক অখÐতা ও সিরিয়ার সঙ্কট সমাধানে রাজনৈতিক সমাধানের বিষয়টি তুলে ধরেন। সউদী বাদশার সফরে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি বিনিয়োগ চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে পারে। জ্বালানি, তরল প্রাকৃতিক গ্যাস প্রকল্প এবং পেট্রো কেমিক্যাল প্ল্যান্টসহ আরও বিভিন্ন খাতে দুই দেশের মধ্যে বিনিয়োগ চুক্তি হওয়ার কথা।
উল্লেখ্য, ২৫ আগস্ট নিরাপত্তা বাহিনীর চেকপোস্টে বিদ্রোহীদের হামলার পর ক্লিয়ারেন্স অপারেশন জোরদার করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। সহিংসতা থেকে বাঁচতে তখন থেকে পাঁচ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আসে। জাতিসংঘ মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের জাতিগত নিধনের অভিযোগ তুলেছে। সূত্র : রয়টার্স, আল-আরাবিয়া।

 


Show all comments
  • Farooq ৬ অক্টোবর, ২০১৭, ১১:০৫ এএম says : 0
    সাহসী পদক্ষেপ ভালো কথায় ধন্যবাদ
    Total Reply(0) Reply
  • Jashim Uddin ৬ অক্টোবর, ২০১৭, ১১:০৫ এএম says : 0
    yes. ameen
    Total Reply(0) Reply
  • মানিক ৬ অক্টোবর, ২০১৭, ২:২৩ পিএম says : 0
    দেরিতে হলেও সউদী বাদশা সালমান একদম ঠিক কথা বলেছেন
    Total Reply(0) Reply
  • Atik Mahmud ৬ অক্টোবর, ২০১৭, ৪:১০ পিএম says : 2
    জাহেলিয়াতের যুগ তাদের কাছে হার মানে।
    Total Reply(0) Reply
  • Farhad Hossain ৬ অক্টোবর, ২০১৭, ৪:১২ পিএম says : 0
    এর একটাই সমাধান মুসলিম সেনা অভিযান এবং সাধীন আরাকান
    Total Reply(0) Reply
  • ইসমাইল ৭ অক্টোবর, ২০১৭, ৩:১৭ এএম says : 0
    আরো আগে বলার উচিৎ ছিল
    Total Reply(0) Reply
  • Juyel islam ৮ অক্টোবর, ২০১৭, ৮:১০ এএম says : 0
    কেয়ামতের আলামত 'মুসলিমদের নিধনে অন্যসব জাতি ঐক্যবদ্ধ হবে।'
    Total Reply(0) Reply
  • aminnul islam ৮ অক্টোবর, ২০১৭, ৫:২৩ পিএম says : 1
    ভারত, চীন, রাশিয়া
    Total Reply(0) Reply
  • sayduzzaman ১১ অক্টোবর, ২০১৭, ৩:৩০ পিএম says : 1
    আরবদের রহিঙ্গা ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা পালনকরা দরকার কেননা বিশ্বের সেরা ধনি দেশের সাথে তাদের বানিজ্য সম্পর্ক । বর্তমানে মায়নমার কোন দেশের কথাই কানে নিচ্ছে না তারা তাদের ইচ্ছেমোত করেই চলছে, রহিঙ্গা নিধন , নির্যাতন , দর্শন , লুটপাট কোনটাই থেমে নেই ,তারেদ বিরুদ্ধে বিশ্ববাসী তথা মোড়লদেশ গুলোকে জাতিবেধ ভুলে পাশে দাড়াতে হবে অনথায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সংখ্যা লগুদের নিধন উৎসাহিত হবে । বিশ্বে অশান্তি ছড়িয়ে পড়বে।
    Total Reply(0) Reply
  • md.joynul abedin ১৬ অক্টোবর, ২০১৭, ৭:৫৩ পিএম says : 0
    realy need. to fight against of mayanmar.other wise they will not stop jenocide.
    Total Reply(0) Reply
  • selina ২১ অক্টোবর, ২০১৭, ৭:২৬ পিএম says : 0
    Stop oil ,oil products to burma .instantly ,brutal massive killing of rohinga Muslim people should expose to world community.take immediate drastic direct unanimous military action on Burma to save rohinga Muslim people.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর