Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ২৪ জানুয়ারী ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬, ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

এপ্রিলে হংকংয়ে অনুষ্ঠিত হবে চতুর্থ বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট সামিট

প্রকাশের সময় : ১৭ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ঃ হংকংয়ে শুরু হচ্ছে চতুর্থ বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট সামিট, এশিয়া। যৌথভাবে আয়োজন করছে সিটি ব্যাংক এবং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, বাংলাদেশ। আগামী ২৬ এপ্রিল হংকংয়ের রিটজ-কার্লটনে ফাইন্যান্স এশিয়া এ সম্মেলনের আয়োজন করবে এশিয়ানইনভেস্টর-এর সহায়তায়। সম্মেলনটির প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে থাকছে সিটি ব্যাংক ও স্ট্যান্ডার্র্ড চার্টার্ড ব্যাংক, বাংলাদেশ।
পূর্ব এশিয়ার শক্তিশালী অর্থনৈতিক অঞ্চল হংকংয়ে এ সম্মেলন আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশের ইতিবাচক ব্যবসার পরিবেশ বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে চান আয়োজকরা। বাংলাদেশ কেনো লাভজনক ও নিরাপদ বিনিয়োগের উৎকৃষ্ট স্থান এও তুলে ধরা হবে সম্মেলনে । দিনব্যাপী সম্মেলনের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো এশিয়ার সম্পদ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ব্যবসা ও বিনিয়োগের সর্বোচ্চ সুযোগের ব্যবহার, সরকারি ও বেসরকারি  পেনশন ফান্ড ও অন্যান্য অর্থনৈতিক বিনিয়োগের সুযোগ কাজে লাগানো।
উপমহাদেশের কর্পোরেট সেক্টরে বিনিয়োগের গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুগুলো নিয়েও আলোচনা হবে এ সম্মেলনে। যে সব সম্ভাব্য বাংলাদেশি কোম্পানির আর্থিক বিনিয়োগ প্রয়োজন, তাদের ব্যাপারেও আলোচনা থাকছে। ইতিপূর্বে এই দুই ব্যাংক সিঙ্গাপুরে তিনবার ও বৃটেনে একবার আয়োজন করেছে এ সম্মেলনের।
সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও সোহেল আর. কে. হুসেইন, বলেন, সিটি ব্যাংক শুরু থেকে বাংলাদেশ বিনিয়োগ সম্মেলনের অংশ ছিল। এ অনুষ্ঠানটি বর্তমানে জাতীয় সম্মেলনে পরিণত হয়েছে, যা বাংলাদেশের সম্ভাব্য বিনিয়োগের সুযোগ ও ক্ষেত্রগুলো তুলে ধরতে আয়োজন করা হয়। আমাদের দেশে বিনিয়োগের যে ভালো সম্ভাবনা রয়েছে তা বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরাই আমাদের লক্ষ্য। এবারের সম্মেলনটি হংকংয়ের মতো বিশ্বের একটি বাণিজ্য শহরে আয়োজন করে আমরা বাংলাদেশি উদ্যোক্তাদের জন্য এশিয়ার বড় বড় উদ্যোক্তাদের সাথে সাক্ষাতের ব্যবস্থার করে দিচ্ছি।
স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক এর সিইও আবরার এ আনোয়ার বলেন, বিভিন্ন খাতে আমাদের অর্থনীতির আরো উন্নতি করার বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে। কয়েক দশক ধরে যেসব শিল্প খাত এ দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে গতিশীল করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ সেসব খাতে সমর্থন অব্যাহত রাখার পাশাপাশি নতুন নতুন খাত চিহ্নিত করবে যা আমাদের অর্থনীতিকে আরো শক্তিশালী করবে। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ১১০ বছরের বেশি সময় ধরে এদেশে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে আসছে এবং বাংলাদেশের উন্নয়নের নিবেদিত আছে। চতুর্থবারের মতো আমরা বাংলাদেশকে এশিয়ান বিনিয়োগকারীদের সামনে বিনিয়োগের জন্য অপার সম্ভাবনাময় এক দেশ হিসেবে তুলে ধরছি, এবং প্রথমবারের মতো এটি আমরা তুলে ধরবো হংকং-এ। বাংলাদেশের উন্নয়নের আমাদের সহযোগীতা অব্যাহত থাকবে। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিনিয়োগ বোর্ডের পরিচালক তৌহিদুর রহমান খান।
আয়োজকরা আশা করছেন ২৫০ গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন এ সম্মেলনে। অংশগ্রহণকারী মধ্যে থাকবেন সরকারি প্রতিনিধি, বহুপাক্ষিক অর্থলগ্নিকারী, রেটিং এজেন্সি, পোর্ট ফলিও ম্যানেজার, গ্লোবাল এসেট ম্যানেজার, বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান, বেসরকারি ব্যাংক, প্রাইভেট ইকুয়িটি, হেজ ফান্ডের প্রধান, সিইও, এমডি, সিএফও এবং বাংলাদেশের কর্পোরেট সেক্টরের সিও, এমডি, সিআইও আর এশিয়া ব্রোকারেজ ও সিকিউরিটি মার্কেটের গবেষণা প্রধানরা। এ সম্মেলনে প্যানেল আলোচনার অন্তর্ভুক্ত থাকবে ‘বাংলাদেশে আগামীর মুদ্রানীতি’, ‘বিনিয়োগ সুযোগ বাড়াতে সরকারী উদ্যোগ’, ‘বর্তমান বাংলাদেশে বিনিয়োগ, বাংলাদেশকে বিনিয়োগের সম্ভাব্য সফলকেন্দ্র গড়ে তোলা’, ‘আইসিটি সেক্টরের রপ্তানির সম্ভাবনা, বাংলাদেশে পিপি ও পিপির সম্ভাবনা, বাংলাদেশের ক্যাপিটাল মার্কেট’ ইত্যাদি বিষয়গুলো।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন