Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৭, ০৯ কার্তিক ১৪২৪, ০৩ সফর ১৪৩৯ হিজরী

ভারতের বিপক্ষেই ঘুরে দাঁড়াতে চায় বাংলাদেশ

| প্রকাশের সময় : ১৩ অক্টোবর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

জাহেদ খোকন : দীর্ঘ তিন দশকেরও বেশী সময় পর ঢাকায় ফিরেছে এশিয়া কাপ হকি টুর্নামেন্ট। গত বুধবার মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে এশিয় হকির সর্ববৃহৎ এ আসরের উদ্বোধন হলেও স্বাগতিক বাংলাদেশের শুরুটা ভালো হয়নি। হিরো এশিয়া কাপের উদ্বোধনী দিনই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামে লাল-সবুজরা। ঘরের মাঠে আক্রমণাতœক খেলা উপহার দেয়ার প্রতিশ্রæতি দিলেও প্রথম ম্যাচেই পাকিস্তানের কাছে অসহায় আতœসমর্পণ করে বাংলাদেশ। ম্যাচে পাকিস্তান ৭-০ গোলের জয় পেলে লজ্জায় মাথা নত হয় স্বাগতিক দলের। তারপরও ঘুরে দাঁড়ানোর প্রচেষ্টা বাংলাদেশের। আর তারা ঘুরে দাঁড়াতে চায় আরেক শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষেই। আজ মওলানা ভাসানী হকি সেটডিয়ামে বিকাল সাড়ে ৫টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এ ম্যাচকে সামনে রেখে গতকাল সকালে টুর্নামেন্ট ভেন্যুতে নতুন পরিকল্পনা নিয়েই অনুশীলন করেন রাসেল মাহমুদ জিমি, মামুনুর রহমান চয়নরা। আগের ম্যাচের ভুল-ত্রæটি শুধরে ভারতের বিপক্ষে ভালো খেলারই লক্ষ্য তাদের।
ঘরের মাঠে এবারের এশিয়া কাপকে স্মরনীয় করে রাখতে চেয়েছিল বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে)। আয়োজনের পাশাপাশি মাঠের পারফরম্যান্সেও সবার নজর কাড়তে চেয়েছিল তারা। যে কারণে রাসেল মাহমুদ জিমি, মামুনুর রহমান চয়নদের অনুশীলনে কোন ঘাটতি রাখেনি বাহফে। তবে আয়োজন সন্তোষজনক হলেও জিমি বাহিনীর পারফরম্যান্স হয়েছে যাচ্ছে-তাই। পাকিস্তানের বিপক্ষে জিমিদের বড় হারে দেশের হকিপ্রেমিরা শুধু হাতাশই হননি, পেয়েছেন লজ্জাও। চার কোয়ার্টারের শেষ দু’টিতে একেবারেই ছন্নছাড়া ছিল। একের পর এক গোল হজম করেছে মিডফিল্ডের ভুলে। বল পজিশনে বাংলাদেশ ছিল দশভাগের কোটায়। এমন ম্যাচের পর যেমন হতাশ হয়েছেন কোচ মাহবুব হারুন, তেমনি বিরক্তি প্রকাশ করেছেন দর্শকরাও।
কাল অনুশীলন শেষে কোচ মাহবুব হারুন ভারত ম্যাচ নিয়ে নিজের পরিকল্পনার কথা জানান মিডিয়াকে। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের বিপক্ষে পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারেনি ছেলেরা। খেলোয়াড় মার্কিংসহ বেশ কিছু ভুল ছিল আমাদের। ভারতের বিপক্ষে তা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করবো।’ অনুশীলন নিয়ে হারুনের কথা, ‘টেকনিক্যাল বিষয়গুলো মাঠে অনুশীলনে বুঝিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা নিয়ে আজ (কাল) মাঠে এসেছিলাম আমরা। কিন্তু পানি না থাকায় তা হয়নি। ভিডিও সেশনে ভুলগুলো শুধরানোর চেষ্টা করবো। আগের ম্যাচে প্রথম দু’কোয়ার্টারের পর থেকে খেলোয়াড়রা বেশি ভুল করছিল। তৃতীয় ও চতুর্থ কোয়ার্টার নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা করব। ভারত নিঃসন্দেহে ভালো দল। ভারতের বিপক্ষে নতুনভাবে শুরু করতে হবে। কৌশলগুলো মাঠে বাস্তবায়ন করতে হবে। ভারতের বিপক্ষে আমাদের সেরাটাই দিতে হবে। অতীত ভুলে নতুন করে শুরু করতে হবে।’ অধিনায়ক জিমি বলেন, ‘পাকিস্তান ম্যাচের ভুলের পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় এজন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করব। ভারতের মতো প্রতিপক্ষের সঙ্গে আয়েশির কোনো সুযোগ নেই। আমাদের পুরো মনোযোগ এখন ভারত ম্যাচকে ঘিরে।’
অন্যদিকে ভারতীয় কোচ জয়ার্ড মারিজন বলেন, ‘বাংলাদেশের ম্যাচের কিছু অংশ দেখেছি। পাকিস্তানের ম্যাচে তারা কিছু ভুল করেছে। ভুলগুলো কি সেটা এখন বলব না। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ জিততে চাই। বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হারলেও ঘুরে দাড়ানোর শক্তি তাদের রয়েছে। তবে আমরা জয়ের ধারাবাহিকতায় থাকতে বদ্ধ পরিকর।’
ভারতের সিনিয়র খেলোয়াড় সারদার সিং বলেন, ‘আমি এর আগেও বাংলাদেশের বিপক্ষে বেশ কিছু ম্যাচ খেলেছি। তাই তাদের অনেকের সম্পর্কে জানা রয়েছে আমার। দল হিসেবে বাংলাদেশ ভালোই। হকিতে যে কোনো দল যে কোনো দিন জেগে উঠতে পারে। ভারত এশিয়া কাপ জিততেই বাংলাদেশে এসেছে এবং প্রতি ম্যাচেই আমরা সমান গুরুত্ব নিয়ে খেলবো জয়ের জন্য।’
ভারত-বাংলাদেশ সর্বশেষ ম্যাচ ২০১৬ এসএ গেমস গৌহাটিতে। ভারত ৪-১ গোলে জিতেছিল।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর